সোমবার, ১৭ মে ২০২১, ০৯:০৫ পূর্বাহ্ন

পটুয়াখালীতে সাংবাদিক মনিরুল ইসলামের উপর হামলা

Reporter Name
  • আপডেট করা হয়েছে রবিবার, ১ মার্চ, ২০২০
  • ১৩৩ বার পড়া হয়েছে

কলাপাড়া প্রতিনিধিঃ

পটুয়াখালীর ম‌হিপুর প্রেসক্লাব সভাপ‌তি ও জি‌টি‌ভির স্থানীয় প্র‌তি‌নি‌ধি ম‌নিরুল ইসলাম এর ওপর হামলা চালিয়ে ক্যামেরা , ওমোবাইল ছিনতাই ছিনতাই করেছে মহিপুর ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সভাপতি মালেক আকনের ছেলে মহিপুর শ্রমিক লীগের বহিষ্কৃত সাবেক সভাপতি সোহাগ আকন সহ তার সন্ত্রাসী বাহিনী । এ সময় সন্ত্রাসীদের হামলা আহত হয়েছে সাংবাদিক মনিরের ছেলে শিহাব (১৭) ও তার ব্যবসার পরিচালক মনির খান । সাংবাদিক মনির কে জখম অবস্থায় কলাপাড়া হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে ।
সাংবাদিক মনির জানায় তার উপর হামলাকারী সোহাগ আকন ২০১৪ সালে পর্যটকদের শ্লীলতাহানি সহ ছিনতাইয়ের অভিযোগে গ্রেফতার হয় । ওই সময় সাংবাদিক মনির সোহাগের ওই ঘটনায় সংবাদ পরিবেশন করায় তার উপর ক্ষিপ্ত হয় সোহাগ আকন ।
পরবর্তীতে সোহাগ আকন সাংবাদিক মনির এর নিজস্ব ব্যবসায়িক কাজে বিভিন্ন সময় হুমকি-ধামকি দিয়ে আসছিল । সাংবাদিক মনির মহিপুর এলাকায় বালির ব্যবসা করেন । সম্প্রতি সোহাগ আকন মনিরের ব্যবসার পরিচালক মনির খানের কাছে চাঁদা দাবি করেন । গতরাত আনুমানিক ৮ টার দিকে সাংবাদিক মনির তার ছেলের শিহাব ও ব্যবসার পরিচালক মনির খানকে নিয়ে মহিপুর আমবাগান এলাকায় গেলে সোহাগ আকন তার দলবল নিয়ে মনির খানের উপরে হামলা চালায় । মনির খানকে হামলাকারীদের হাত থেকে বাঁচাতে গেলে সন্ত্রাসীরা সাংবাদিক মনির এর উপর হামলা চালিয়ে তার সাথে থাকা মোবাইল ও ক্যামেরা ছিনতাই করে নিয়ে যায় এসময় সন্ত্রাসীদের হামলায় সাংবাদিক মনির ও তার ছেলে শিহাব গুরুতর জখম হয় । স্থানীয় লোকজন পরবর্তীতে তাদেরকে উদ্ধার করে কলাপাড়া হাসপাতালে ভর্তি করে । রাত আনুমানিক দশটার দিকে সাংবাদিক মনিরকে গুরুতর অবস্থায় বরিশাল মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরণ করা হয় ।
এ বিষয়ে মহিপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মাহবুব আলম জানান, ব্যবসায়িক কারণে উভয়ের মধ্যে পূর্ব থেকে দ্বন্দ্ব রয়েছে যার জেরে আজকের ঘটনা ঘটেছে ।খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠানো হয়েছে । এখনপর্যন্ত সাংবাদিক মনিরের পক্ষ থেকে কোনো অভিযোগ পাইনি , অভিযোগ না পেলেও আমরা তদন্ত করে দেখছি । আর অভিযোগ পেলে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।

সংবাদটি শেয়ার করুন

কমেন্ট করুন

আরো সংবাদ পড়ুন
themesba-lates1749691102