সোমবার, ২৬ জুলাই ২০২১, ০৭:২৪ অপরাহ্ন

পেকুয়ার শীলখালীতে এক শিক্ষকের বসতবাড়ি ভাংচুর-লুটপাট

সৈকত
  • আপডেট করা হয়েছে রবিবার, ২০ জুন, ২০২১
  • ১১ বার পড়া হয়েছে

পেকুয়া উপজেলার শীলখালী ইউনিয়নের লামার পাড়ায় একজন শিক্ষকের বসতবাড়ি ভাংচুরের অভিযোগ উঠেছে। গত ১৬ জুন বিকাল ৫টার দিকে এ ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় বাড়ির মালিক স্থানীয় রহমত আলীর পুত্র স্কুল শিক্ষক মুহাম্মদ নুর-উস-সাফা বাদীয় হয়ে ঘটনায় জড়িত ৩ জনের বিরুদ্ধে পেকুয়া থানায় অভিযোগ দায়ের করেছেন।

তিনি অভিযোগে জানান, গত ১৬ জুন তিনি কর্মস্থলে থাকার সুযোগে একই এলাকার মৃত মোবারক আলীর পুত্র মোঃ ফয়সাল (৩৫), মৃত করম আলীর পুত্র আবদু রশিদ (৫০) ও মোহাম্মদ আলীর পুত্র সেলিম উদ্দিন (৪০) আমার বসতবাড়িতে অতর্কিত হামলা চালিয়ে ভাঙচুর ও লুটপাট চালায়।

তিনি জানান হামলাকারীরা স্থানীয়ভাবে সন্ত্রাসি ও খারাপ প্রকৃতির লোক। আমার পুর্ব পুরুষ হতে ওয়ারিশ সূত্রে প্রাপ্ত দীর্ঘদিনের ভোগ দখলীয় জায়গা যার বিএস খতিয়ান নং-২৬৪, বিএস দাগ ৬১১৭,৬১১৪ ও ৬১১৫ জায়গার পরিমান ২৮ শতক ও ১০ শতকসহ মোট ৩৮ শতক জায়গা ভোগ দখলে আছি। কিন্তু দীর্ঘদিন থেকে অভিযুক্ত আমার দখলীয় জায়গা জবর দখল করতে ষড়যন্ত্র করে আসছে।

বিগত ১৫ বছর আগেও স্থানীয় চেয়ারম্যানের কাছে বিষয়টি বিচারাধীন ছিল। উক্ত সন্ত্রাসীরা তাদের অপকর্মের ধারাবাহিকতায় ১৬ জুন অভিযুক্ত ৩ জন সহ আরো ৪০/৫০ জন ভাড়াটিয়া সন্ত্রাসী আমার বাড়িতে হামলা চালায়।এতে বাড়ির ব্যাপক ক্ষতি হয় এবং প্রায় ৩ লাখ টাকার মালামাল লুট করে নিয়ে যায়। তারা প্রতিদিন আমাদেরকে প্রাণ নাশের হুমকি দিচ্ছে। যেকোন মুহুর্তে আবারো হামলা চালিয়ে আমাদের হত্যা করতে পারে।

বর্তমানে আমরা চরম নিরাপত্তাহীনতায় রয়েছি। স্থানীয় লোকজন জানান, হামলাকারীরা স্থানীয়ভাবে প্রভাবশালী ও সন্ত্রাসী প্রকৃতির লোক। তারা বিভিন্ন সময় নিরিহ লোকজনের জমি দখল, বিভিন্ন অপরাধমুলক কাজ করে আসছে। প্রাপ্ত তথ্যে জানা যায় অভিযোগ দায়েরের পরই তা তদন্তের জন্য পেকুয়া থানার এসআই লেয়াকত আলীকে দায়িত্ব দিয়েছেন। তিনি জানিয়েছেন অভিযোগটি এখন তদন্তাধীন।

 

সংবাদটি শেয়ার করুন

কমেন্ট করুন

আরো সংবাদ পড়ুন
themesba-lates1749691102