সোমবার, ২৯ নভেম্বর ২০২১, ০২:১২ অপরাহ্ন

রোদ, বৃষ্টি উপেক্ষা করে লকডাউন বাস্তবায়নে কাজ করছে প্রশাসন

সৈকত
  • আপডেট করা হয়েছে সোমবার, ৫ জুলাই, ২০২১
  • ৪৪ বার পড়া হয়েছে

করোনা সংক্রামন রোধে সরকার ঘোষিত কঠোর লকডাউন বাস্তবায়নে আন্তরিকতার সাথে কাজ করছে কক্সবাজার জেলা প্রশাসন ও আইনশৃংখলা বাহিনী। রোদ বৃস্টি ঝড় যে কোন পরিস্থিতিতে রাস্তায় এবং গ্রামে গঞ্জে ছুটে বেড়াচ্ছেন প্রশাসন সহ আইনশৃংখলা বাহিনীর সদস্যরা। রোববার সকাল থেকে কক্সবাজার ভারী থেকে মাঝারি বৃস্টি হলেও লকডাউন বাস্তবায়নে কঠোর ভাবে পদক্ষেপ নিতে দেখা গেছে। এ সময় বৃস্টির মধ্যেও অনেক মানুষজন রাস্তায় বের হলে তাদের ঘরে ফেরাতে কাজ করছে প্রশাসন। এছাড়া জেলার মহেশখালী, কুতুবদিয়া, চকরিয়া, পেকুয়া সহ সর্বস্ত্র বৃস্টি উপেক্ষা করে আইনশৃংখলা বাহিনীকে কাজ করতে দেখা গেছে।

মহেশখালী উপজেলা নির্বাহী অফিসার মাহফুজুর রহমানের সাথে মোবাইলে যোগাযোগ করা হলে তিনি জানান, সরকার জনগনের নিরাপত্তার কথা চিন্তা করে কঠোর লকডাউন ঘোষণা করেছে। কিন্তু অনেকের মধ্যে সচেতনতার অভাব কাজ করছে তাই আমাদের মাঠে থাকতে হয়। রবিবার সারাদিন বৃষ্টি হয়েছে সেখানেও আইনশৃংখলা বাহিনীকে সাথে নিয়ে নৌবাহিনী সহ আমরা সবাই মাঠে কাজ করেছি। এ ব্যপারে উপজেলা প্রেস ক্লাবের সভাপতি আবুল বশর পারভেজ বলেন, প্রশাসন খুবই আন্তরিকতার সাথে কাজ করছে কিন্তু সাধারণ মানুষ সচেতন হচ্ছে না। উপজেলা সহ ইউনিয়নের মূল ষ্টেশন গুলোতে লকডাউনের কিছুটা প্রভাব থাকলেও বেশির ভাগ গ্রামগঞ্জে তার প্রভাব নেই।

চকরিয়া উপজেলা চেয়ারম্যান ফজলুল করিম সাঈদী বলেন রবিবার লকডাউনের চতুর্থ দিন পার করেছি, আমার দেখা মতে ইউএনও সহ আমরা সার্বক্ষনিক মাঠে কাজ করছি, সারাদিন থেমে থেমে বৃষ্টি হয়েছে এর মধ্যেও আইনশৃংখলা বাহিনী সার্বক্ষনিক মাঠে কাজ করেছে এটা সত্যি প্রশংসার দাবিবার। তবে মানুষ কিন্তু বেশ উদাসিন। লকডাউন কিভাবে চলছে সেটা দেখার জন্যও মানুষ ঘর থেকে বের হচ্ছে এটা খুবই দুঃখজনক।

উখিয়া উপজেলা সুজন সভাপতি নুর মোহাম্মদ সিকদার বলেন, উখিয়াতে প্রশাসন অনেক বেশি আন্তরিকতার সাথে লকডাউন বাস্তবায়নে কাজ করছে। কোথাও ত্রাণের জন্য ফোন আসলে ইউএনও সেখানে নিজে গিয়ে ত্রাণ পৌছে দিচ্ছেন। তবে রোহিঙ্গা ক্যাম্প ভিত্তিক কিছু এলাকার মানুষজন আইন মানতে নারাজ। তারা নানান অজুহাতে ঘরের বাইরে আসে। আবার অনেক মানুষ আছে দিন মজুর বা শ্রমজীবি মানুষ তারা বের হচ্ছে। এছাড়া কিছু মানুষ আছে যারা প্রয়োজন না হলেও বিনা কারণে ঘর থেকে বের হচ্ছে। তবে রোদ বা বৃষ্টি হোক যে কোন পরিস্থিতিতে প্রশাসন মাঠে আছে। এ ব্যাপারে কক্সবাজারের অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক আমিন আল পারভেজ বলেন, গত দিনে প্রায় সাড়ে শত ব্যক্তিকে জরিমানা করা হয়েছে। তবে আমরা চাই মানুষ নিজ থেকে সচেতন হউক। কাউকে যেন জরিমানা করতে না হয়। তবে এটা সত্য রোদ বা বৃষ্টি যে কোন পরিস্থিতিতে প্রশাসনের কর্মকর্তারা মাঠে থাকেন।

সংবাদটি শেয়ার করুন

কমেন্ট করুন

আরো সংবাদ পড়ুন
themesba-lates1749691102