বুধবার, ২৮ জুলাই ২০২১, ১১:২৫ পূর্বাহ্ন

সারফেস ওয়াটার ট্রিটমেন্ট প্লান্টের নির্মাণাধীন কাজ পরিদর্শন করলেন সিনিয়র সচিব হেলালুদ্দীন

সৈকত
  • আপডেট করা হয়েছে রবিবার, ১৩ জুন, ২০২১
  • ২৫ বার পড়া হয়েছে

চলামান ওয়াটার ট্রিটমেন্ট প্লান্ট চালু হলে কক্সবাজার পৌরসভার নাগরিকদের জন্য সুপেয় খাবার পানির সমস্যা আর থাকবে না। ১২৫ কোটি টাকা ব্যয়ে সারফেস ওয়াটার ট্রিটমেন্ট প্লান্ট স্থাপন করা হচ্ছে। কক্সবাজারের ঝিলংজার চান্দের পাড়ায় রাবার ড্যাম এলাকাতে এই আধুনিক প্লান্ট নির্মাণের কাজ প্রায় ৫০ ভাগ সম্পন্ন হয়েছে। প্লান্টের পুরোপুরি কাজ বাস্তবায়ন হলে কক্সবাজার পৌরবাসীকে নিয়মিত সুপেয় পানি সরবরাহ দেওয়া যাবে। পাশাপাশি কক্সবাজার পৌরবাসীর দীর্ঘদিনের একটি দাবিও পূরণ হবে।

স্থানীয় সরকার বিভাগের সিনিয়র সচিব হেলালুদ্দীন আহমদ শুক্রবার ১১ জুন বিকেলে সারফেস ওয়াটার ট্রিটমেন্ট প্লান্টের নির্মাণাধীন কাজ পরিদর্শনে গিয়ে একথা বলেন। ১’১৭ একর জমিতে বৃহৎ এই পানি শোধনাগার প্রকল্পটি বাস্তবায়ন করা হচ্ছে। সিনিয়র সচিব হেলালুদ্দীন আহমদ বলেন, কক্সবাজার পৌরবাসীর পানীয়জলের দীর্ঘদিনের সংকট কাটাতে এ প্রকল্প হাতে নেওয়া হয়েছে। এ প্লান্টে দৈনিক ৮ ঘন্টায় ৮০ লক্ষ লিটার পানি পরিশোধন করা যাবে।

এডিবির আর্থিক সহায়তায় জনস্বাস্থ্য প্রকৌশল অধিদপ্তর এ প্লান্টের কাজ বাস্তবায়ন করছে। সিনিয়র সচিব প্রকল্পের কাজের অগ্রগতি পরিদর্শনের সময় প্লান্টের অবশিষ্ট কাজ দ্রুত বাস্তবায়নে স্থানীয় জনসাধারণের সহযোগিতা কামনা করেন। পরিদর্শনকালে অন্যান্যের মধ্যে কক্সবাজার জেলা প্রশাসনের ডিডিএলজি (উপসচিব) শ্রাবস্তি রায়, জনস্বাস্থ্য প্রকৌশল অধিদপ্তরের নির্বাহী প্রকৌশলী ঋত্বিক চৌধুরী সহ উর্ধ্বতন কর্মকর্তাগণ উপস্থিত ছিলেন।

উখিয়ার আঞ্জুমানপাড়ায় ওয়াটার ট্রিটমেন্ট প্লান্ট পরিদর্শনে সিনিয়র সচিব হেলালুদ্দীন ঃ উখিয়া থেকে আমাদের স্টাফ রিপোর্টার ফারুক আহমদ জানান, স্থানীয় সরকার বিভাগের সিনিয়র সচিব হেলালুদ্দীন আহমেদ উখিয়ায় চলমান ওয়াটার সাপ্লাই প্রকল্প পরিদর্শন করেছেন।

শনিবার (১৩ জুন) বিকেলে এশিয়া উন্নয়ন ব্যাংকের অর্থায়নে ও জনস্বাস্থ্য প্রকৌশল অধিদপ্তর কর্তৃক উপজেলার পালংখালী ইউনিয়নের আনজুমান পাড়া এলাকায় বাস্তবায়নাধীন সারফেস ওয়াটার ট্রিটমেন্ট প্লান্টের উন্নয়ন প্রকল্পের আগ্রগতি ঘুরে দেখেন সিনিয়র সচিব হেলালুদ্দীন।

এ সময় কক্সবাজার জেলা প্রশাসক মোঃ মামুনুর রশিদ, জনস্বাস্থ্য প্রকৌশল অধিদপ্তরের নির্বাহী প্রকৌশলী ঋত্বিক চৌধুরী, এডিবির কনসালটেন্টসহ সংশ্লিষ্টরা উপস্থিত ছিলেন।

পালংখালী ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান এম গফুর উদ্দিন চৌধুরী বলেন, উখিয়া-টেকনাফের সীমান্তবর্তী এলাকা আনজুমান পাড়া এলাকায় ৫০ একর জায়গার উপর বৃহৎ আকারে পানি শোধনাগার প্রকল্পটি বাস্তবায়ন করা হচ্ছে।

প্রকল্পের তথ্য সংক্রান্ত বিষয়ে জানার জন্য উখিয়া উপজেলা জনস্বাস্থ্য প্রকৌশল অধিদপ্তরের প্রকৌশলী আল আমিন বিশ্বাসের সাথে যোগাযোগ করা হলে তেমন তথ্য জানা নেই বলে জানিয়ে তিনি বলেন কক্সবাজার অফিসের সাথে যোগাযোগ করতে।

সংবাদটি শেয়ার করুন

কমেন্ট করুন

আরো সংবাদ পড়ুন
themesba-lates1749691102